কুলিয়ারচর পৌর নির্বাচন বর্জন করেছে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীর নূরুল মিল্লাত

মুহাম্মদ কাইসার হামিদ, কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি :

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর পৌর নির্বাচনে কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া, কেন্দ্রে প্রবেশ করতে বাঁধা দেওয়া ও ভোট কেন্দ্রে ইভিএম মেশিনে ভোটারদের ফিংগ্রার নেওয়ার পর নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে বাধ্য করার অভিযোগে নির্বাচন বর্জন করেছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী নূরুল মিল্লাত।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বেতিয়ারকান্দি গ্রামে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ভাবে এই ঘোষণা দেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা বিএনপি’র সভাপতি মো. শরীফুল আলম বলেন, নির্ধারিত সময়ে সুষ্টু ও সুন্দর পরিবেশে ভাবে নির্বাচন শুরু করলেও সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে কুলিয়ারচর সরকারি কলেজ কেন্দ্রে বিএনপি’র এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেয় আওয়ামী লীগ সমর্থীত এজেন্ট ও সমর্থকরা। এ সময় বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে কুলিয়ারচর থানার এস আই মুহাম্মদ আজিজুল হক লাঞ্চিত করেন। ওই এসআই দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর যাবৎ একই থানায় কর্মরত আছে। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি সংসদ সদস্য পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে প্রচার প্রচারণা চালানোর সময় ওই এসআই আমাকেও লাঞ্চিত করেন। একই ভাবে ৯নং ওয়ার্ডসহ বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আমাদের এজেন্টদের বের করে দেয়। কেন্দ্রে পুলিশ দাড়িয়ে থাকলেও প্রশাসনের কোন ভূমিকা নাই। এ সময় তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ প্রশাসনকে ব্যবহার করে নির্লজ্জ ও নির্ধয় ভাবে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীকে পরাজিত করার প্রয়াস চালায়। উপরে আল্লাহ আছেন তিনি সব দেখছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত কুলিয়ারচর সরকারি কলেজ কেন্দ্রের ভোটার মমতাজ বেগম অভিযোগ করে বলেন, সুজন নামের একজন ব্যক্তি তাকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়। কুলিয়ারচর ডিগ্রি কলেজের বিএনপি’র এজেন্ট নূরুল ও জুয়েল ৯নং ওয়ার্ডের পালটিয়া মাসকান্দি কেন্দ্রে সোহেল, সজিব, মোবারক, কাউসার, হান্নান, জিয়া ও শাজাহান অভিযোগ করে বলেন, তাদেরকেও লাঞ্চিত করে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয় আওয়ামী লীগ সমর্থীত এজেন্ট ও সমর্থকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »