বীরমুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার মোহাম্মদ রমিজকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

 মো. আলাল উদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধি ॥

ভৈরব পৌর এলাকার ভৈরবপুর উত্তর পাড়ার মরহুম রমজান আলী মিয়ার নাতী মরহুম মতিউর রহমান (চাঁন মিয়া)র কনিষ্ঠ পুত্র বীরমুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার মোহাম্মদ রমিজকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে ১৯ মে দুপুরে স্থানীয় ফাতেমা রমজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে স্বল্প জমায়াতের মাধ্যমে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার পূর্বে উপজেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষ থেকে মরহুমের কফিনে ফুলের তোড়া দিয়ে শ্রদ্ধা জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ফরহাদ আহমেদসহ অন্যান্য বীরমুক্তিযোদ্ধাগণ। এ সময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম, মরহুমের ভগ্নিপতি কর্ণেল (অব.) মো. মজিবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সম্পাদক এনামুল হক জাহাঙ্গীর, পৌর কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী সোহাগ, লঞ্চ মালিক সমিতির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান হেলিম, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. ওমর ফারুক, যুবদল সভাপতি দেলোয়ার হোসেন সুজন, সাংবাদিক মো. জাকির হোসেন, আ. খালেক, শওকত আলী ফাহিম, মৌলানা এনায়েতুল্লাহ ভৈরবী ও মৌলানা আল আমিন, মরহুমের কনিষ্ঠ পুত্র মোনাজাত আলী মাহমুদসহ মরহুমের আত্মীয় স্বজন ও এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। ভৈরব থানার পুলিশের একটি সুসজ্জিত দল এই বীর নায়ককে গার্ড অব অনার (রাষ্ট্রীয় সম্মান) প্রদান করে। মরহুম মোহাম্মদ আলী রমিজ গত ৫ মে আমেরিকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। তিনি স্ত্রী, ৩ পুত্র সন্তান ও ১ বোন রেখে যান। মরহুম বীরমুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী রমিজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। কর্মজীবনে তিনি বেশ ক’বছর চা বাগানের ম্যানেজারে দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি আমেরিকায় প্রবাসী জীবন যাপন করেন। মরহুমের নিকটতম আত্মীয় স্বজনরা জানান, মরহুমের মৃত্যুকালে তিনি প্রচুর ধন সম্পদ রেখে গেছেন। সেই অর্থ থেকে মানবকল্যাণে মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, বৃদ্ধাশ্রম, স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হবে। তার মৃত্যুতে ভৈরবের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ গভীরভাবে শোকাহত। উল্লেখ্য যে, তার পরিবারবর্গের পক্ষ থেকে ভৈরব বেশ কটি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ, এতিমখানা প্রতিষ্ঠা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »