ভৈরবের মানিকদীতে ফ্লাটবাসা থেকে দুই কপোত কপোতি আটক

শামীম আহমেদ:
কিশোরগঞ্জের ভৈরবে অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগে যুবক ও কিশোরী বয়সী দুই কপোত কপোতিকে আটক করেছে স্থানীয় জনতা।
স্থানীয়রা জানান, ১১ আগষ্ট, মঙ্গলবার সন্ধ্যা আনুমানিক ৬টার দিকে স্থানীয় জনতা তাদেরকে একটি ফ্লাটবাসা থেকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। পরে ভৈরব থানা পুলিশের এসআই আব্দুস সালাম ঘটনাস্থলে গেলে স্থানীরা দুই কিশোর কিশোরীকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। দুই কিশোর কিশোরীকে নিজের বাসায় এনে অনৈতিক কাজে সহযোগিতাকারী মানিকদী মধ্যপাড়া গ্রামের ফ্লাট মালিক মো: আলম মিয়া তখন পালিয়ে যায়। আটককৃত যুবক মানিকদী দক্ষিণপাড়া বড়বাড়ির মো: বাদল মিয়ার ছেলে মো: আরিফ (১৯) এবং কিশোরী মানিকদী পুরারগাঁও গ্রামের আনোয়ার হোসেনের মেয়ে তাসলিমা (১৬)।
স্থানীয়রা আরো জানান, দক্ষিণপাড়া গ্রামের আলম মিয়ার প্রসুতি স্ত্রী বেশ কিছুদিন ধরে বাপের বাড়িতে অবস্থান করার সুযোগে খালি বাসায় অনৈতিক কর্মকান্ডে সহযোগিতা করেছে। এ ঘটনার খবর পেয়ে আলমের স্ত্রী মানিকদীতে ছুটে আসেন বলে অনেকই ঘটনার বিবরণ জানাতে গিয়ে বলেছেন। স্থানীরা বলেছেন, যুবক ও কিশোরী মঙ্গলবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত একই রুমের ভিতর অবস্থান করছিলো। খালি ফ্লাটে দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করায় স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হয়। পরে একই রুমের ভিতর দুজনকে পেয়ে আটক করে। আটকের পর স্থানীয় এক রাজনৈতিক নেতা আটককৃতদের জিজ্ঞাসা করার সময় দুই যুবক ও কিশোরীর ভাষ্য ছিলো, তারা দুজনই প্রেম করত, দুই একদিনের মধ্যে দুজনই পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলো। অভিযোগ রয়েছে, এঘটনায় স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল বিষয়টি রফাদফার চেষ্টা চালাচ্ছে।
এ বিষয়ে ভৈরব থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আমজাদ শেখ জানান, জনতার হাতে আটক কিশোর কিশোরীকে থানায় আনা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »