ভৈরবে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে কাঠ ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের মৃত্যু

জয়নাল আবেদীন রিটন, বিশেষ প্রতিনিধি ॥
কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলায় এবার করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মাছ ও সবজী ব্যবসায়ীর পর মারা গেলেন কাঠ ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম (৭০)। তিনি শহরের দক্ষিণ পাড়া আব্দুর রহমান গেইট রোডের বাসিন্দা এবং ভৈরব বাজারের কাঠপট্টি এলাকার একজন কাঠের পুরাতন দরজা-জানালা বিক্রেতা।

এ নিয়ে তৃতীয় ব্যবসায়ীর মৃত্যু হলো ভৈরবে। তবে প্রথম মৃত্যুবরণকারী মাছ ব্যবসায়ী অমিয় চন্দ্র দাসের প্রতিবেদন ইতোমধ্যে আসলেও দ্বিতীয় মৃত সবজী ব্যবসায়ী জানে আলম ওরফে শাহ আলমের প্রতিবেদন এখনও আসেনি।

পারিবারিক সূত্রের বরাত দিয়ে ভৈরব উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: বুলবুল আহম্মদ জানান, কয়েকদিন যাবত তিনি জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার হঠাৎ তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর মৃত্যুর খবর পেয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আইআইআরডিসিআরের বিধান অনুসরণ করে দাফন কাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

এ ছাড়াও আজ শুক্রবার পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তারা হোমকোয়ারেন্টিনে থাকবেন। তাদের বাড়ি ও আশে পাশের বাড়ি ঘরের চলাচল সীমিত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »