ভৈরবে ১৫টি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান- ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা

শামীম আহমেদ:
কিশোরগঞ্জের বন্দরনগরী ভৈরবে একাধিক বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। ১০ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়। সরকারি অনুমোদন (লাইসেন্স) না থাকাসহ নানা অসঙ্গতির কারণে শহরের ১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টে ও ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজনা।
আরো জানাগেছে, শহরের নামে বেনামে প্রায় অর্ধশতাধিক বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টার গড়ে ওঠেছে। এরমধ্যে হাতেগুনা কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সরকারি অনুমোদন থাকলেও অধিকাংশ হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অনুমোদন নেই। শুধু তাই নয়, নেই দক্ষ জনবল। কোন কোন প্রতিষ্ঠানে নেই সার্বক্ষনিক চিকিৎসক। এমন কি নেই গুরুত্বপূর্ণ পরিক্ষা-নিরিক্ষার উপযুক্ত প্যাথলজিষ্ট ও টেকনোলজিষ্ট। তাছাড়া হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোতে নিয়ম অনুযায়ী পরিক্ষা-নিরিক্ষার নেই উপযুক্ত পরিবেশ। ফলে একদিকে প্রতি বছর সরকার যেমন হারাচ্ছে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব। তেমনি শহরে সেবা নিতে এসে গ্রামের সহজ-সরল মানুষজন প্রতারিত হচ্ছে। এছাড়াও জীবানু যুক্ত ময়লা ফেলার নেই কোন নির্দিষ্ট ডাস্টবিন। এমন নানা অসঙ্গতির কারণে কমলপুর ও নিউ টাউনে ১৫টি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় নিয়ম অনুযায়ী পরিক্ষা-নিরিক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে উপযুক্ত পরিবেশনা থাকার কারণে বেসরকারি হাসপাতাল মা ও শিশু জেনারেল হাসপাতালকে ২০ হাজার টাকা, ট্রমা জেনারেল হাসপাতালকে ২০ হাজার টাকা, ফরিদা মেডিকেল কেয়ারকে ২০ হাজার টাকা, ভৈরব চুক্ষু সেন্টারকে ২০ হাজার টাকা ও আল মদিনা হাসপাতালকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই কারণে এবং দক্ষ জনবল অর্থ্যাৎ পরিক্ষা-নিরিক্ষার উপযুক্ত প্যাথলজিষ্ট ও টেকনোলজিষ্ট না থাকায় গ্রামীণ জেনারেল হাসপাতালকে ২০ হাজার টাকা, ভৈরব সেন্ট্রাল জেনারেল হাসপাতালকে ২০ হাজার টাকা ও পদ্মা জেনারেল হাসপাতালকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও কোন ধরণের অনুমোদন ছাড়া শহরের নিউ টাউন এলাকায় হরিপদ ম্যানসনে অর্থ্যাৎ ডা. হরিপদ দেবনাথ তার নিজস্ব ভবণের নিচ তলায় দীর্ঘ দিন ধরে পরিক্ষা-নিরিক্ষার উপযুক্ত প্যাথলজিষ্ট ও টেকনোলজিষ্ট না রেখে ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিচালনা করছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে (ডা. হরিপদ দেবনাথ) ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টে ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজনা।
এসময় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় সহযোগীতা করেন, ভৈরব উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রী খীসা ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও ডাঃ খুরশীদ আলম। এছাড়াও ভ্রাম্যমান আদালতকে সহযোগিতা করেন উপজেলা স্যানেটারী অফিসার রুহুল আমিনসহ আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা।
এ প্রসঙ্গে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টে ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজনা বলেন, অনুমোদন (লাইসেন্স) না থাকাসহ নানা অসঙ্গতির কারণে ভৈরব পৌর শহরে ১৫টি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সর্বমোট ১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।তাছাড়া তিনি আরো বলেন এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »